মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩১st জানুয়ারি ২০১৯

নারীর ক্ষমতায়ন

 

  • নারী উদ্যোক্তাদের উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে গঠিত জয়িতা ফাউন্ডেশনের অধীন ১৮০টি সমিতির মাধ্যমে তৃণমূল পর্যায়ের  ১৪,৯৬০ জন নারী উদ্যোক্তার পণ্য বাজারজাতকরণ;
  • মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের অধীন নিবন্ধিত মহিলা সমিতিভুক্ত দরিদ্র মহিলা এবং দুঃস্থ ও অসহায় মহিলাদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে তাঁদের তৈরী পোষাক/পণ্য সামগ্রী বিক্রয়ের জন্য রাজস্ব বাজেটের আওতায় অধিদপ্তরের সদর কার্যালয়ে  বিক্রয় ও প্রদর্শনী কেন্দ্র “অঙ্গনা” পরিচালিত হচ্ছে।
  • আত্নকর্মসংস্থানের জন্য ক্ষুদ্র ঋণ কার্যক্রমের আওতায় ২০১৪-১৫ অর্থবছর হতে জুন/২০১৮ পর্যন্ত ৩৫,৬৫০জন নারীকে ৪৩ কোটি ৩৩ লক্ষ ২৭ হাজার টাকা বিতরণ।
  • মাতৃত্বকালীন ভাতাপ্রাপ্ত মা’দের জন্য ‘স্বপ্ন প্যাকেজ’ কর্মসূচীর আওতায় ৫৭.৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০টি জেলার ১০টি উপজেলায় ৭০০ জন উপকারভোগী মা’দের স্বাস্থ্যসম্মত ল্যাট্রিনসহ আবাসন এর ব্যবস্থা করা হয়েছে;
  • গ্রামীন দরিদ্র নারীদের আয়বর্ধক কার্যক্রমে সম্পৃক্ত করার জন্য অধিদপ্তরের আওতায় নিবন্ধিত মহিলা সমিতিসমূহে ২০১৪-১৫ অর্থবছর হতে জুন/২০১৮ পর্যন্ত ৩৯ কোটি ৪৫লক্ষ ১৫ হাজার টাকা অনুদান হিসেবে বিতরণ। ২০১৪-১৫ অর্থবছর থেকে দুঃস্থ অসহায় নারীদের মধ্যে ১০,৭৪৩টি সেলাই মেশিন বিতরণ। দুঃস্থ ও শিশু কল্যাণ তহবিল থেকে ৯৩৪ জনকে ১কোটি ৫২ হাজার টাকা অনুদান বিতরণ।
  • তৃণমূল পর্যায়ে নারীদের স্বীকৃতি ও অনুপ্রেরণাদানের জন্য ‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ কর্মসূচির মাধ্যমে ৫টি ক্যাটাগরিতে উপজেলা, জেলা এবং বিভাগীয় পর্যায়ে নির্বাচিত ১৮৫জন নারীকে সম্মাননা প্রদান;
  • নারী শিক্ষা, নারী অধিকার, নারীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং শিক্ষা, সংস্কৃতির মাধ্যমে নারী জাগরণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য ২০১৪-১৫ অর্থবছর থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত মোট ১৬ জন বিশিষ্ট নারীকে বেগম রোকেয়া পদক প্রদান ।
  • স্বল্প ব্যয়ে আবাসন সুবিধা প্রদানে কর্মজীবী নারীদের জন্য ঢাকা শহরে ৪টি, রাজশাহী, খুলনা, যশোর এবং চট্টগ্রামে ১টি করে মোট ৮টি  ১৬০৬ আসন বিশিষ্ট কর্মজীবী মহিলা হোস্টেল পরিচালিত হচ্ছে।
  • গার্মেন্টসে কর্মরত নারীদের স্বল্প ব্যয়ে আবাসন সুবিধা প্রদানের জন্য বড় আশুলিয়া, সাভার, ঢাকায় ৭৪৪ আসন বিশিষ্ট একটি ১২তলা হোস্টেল নির্মাণ করা হয়েছে। একই সাথে শিশুদের জন্য দিবাযত্ন কেন্দ্র সুবিধা রয়েছে।
  • কর্মজীবী মায়ের সন্তানদের জন্য ঢাকা শহরে ২৫টি বিভাগীয় শহরে ৫টি এবং জেলা শহরে ১৩টিসহ মোট ৪৩টি ডে-কেয়ার সেন্টার চালু রয়েছে।
  • গার্মেন্টসে কর্মরত নারীদের সন্তানের জন্য  ঢাকা, চট্রগ্রাম, মানিকগঞ্জ, গাজীপুর  ও নারায়নগঞ্জের প্রতিটিতে ৩০ আসন বিশিষ্ট  ১৫টি ডে-কেয়ার সেন্টার চালু রয়েছে।

 

প্রশিক্ষণ:

  • নারীর উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে ৩৩.৪৩ লক্ষ নারীকে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে ;
  • সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির উপকারভোগী ৪৮,৮৬,৪৮২ জন নারীকে পুষ্টি, মা ও শিশুর মৃত্যুহার হ্রাস, মাতৃদুগ্ধ পানের হার বৃদ্ধি, ইপিআই, প্রসব ও প্রসবোত্তর সেবার গুরুত্ব ও পরিবার পরিকল্পনা এবং আয়বর্ধক ও সামাজিক সচেতনতামূলক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে;
  •  ৮০০০ দুঃস্থ ও অসহায় নারীকে ব্যবসা পরিচালনার জন্য একালীন ১৫০০০/- টাকা অনুদানসহ  প্রশিক্ষণ প্রদান;
  • মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের জাতীয় মহিলা প্রশিক্ষণ একাডেমী কর্তৃক মোট ১.৮৪ লক্ষ নারীকে দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ  এবং আবাসিক ও অনাবাসিক বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণসহ  অধিদপ্তরের অধীন নিবন্ধিত স্বেচ্ছাসেবী মহিলা সমিতির নেতৃবৃন্দকে সক্ষমতা বৃদ্ধির প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।
  • অনগ্রসর, বেকার মহিলাদের আত্ন-কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে সেলাই ও এমব্রয়ডারী, ব্লক- বাটিক, চামড়াজাত শিল্প এবং খাদ্য প্রস্ত্তত ও প্রক্রিয়াজাতকরণ ইত্যাদি বিষয়ে জানুয়ারী ২০১৪ থেকে ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত ৫২,১০৩ জন মহিলাকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

Share with :

Facebook Facebook